মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

মামলার আবেদন

বরাবর,                                           তাং:২৫/০২/১৮                                                                                             

চেয়ারম্যান                                 

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

বিষয়:  জমি নিয়ে বিরোধের সুষ্ঠ সমাধানের আবেদন প্রসঙ্গে ।

 

 

       
 

বাদী

০১।মো:নুরল হক: পিতা:মৃত-রজব আলী

গ্রাম: হরিনারায়নপুর ওয়ার্ড-০৫

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

     মোবা: ০১৭৪৪৪৩০৫৯৯

 

   

বিবাদী

১।মো: ওয়াজেদ আলী ০২।মো: ইয়াকুব আলী উভয়ের পিতা: ইসাহক আলী

০৩।মো: হান্নান পিতা: ইউনুস আলী

গ্রাম: হরিনারায়নপুর ওয়ার্ড:০৫

ডাকঘর:হরিনারায়নপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

জনাব,

 

সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ১১ নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ০৫ নং ওয়ার্ডের হরিনারায়নপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। উপরোক্ত বিবাদীগনের সাথে গত ২৩/০২/২০১৮ ইং তারিখে রোজ শুক্রবার বেলা: আনু: দুপুর ০২. ঘটিকায় আমার বসতভিটা জমি নিয়ে বিরোধ বাধে। উপরোক্ত বিবাদী আমার জমির উপর জোরপুর্বক ঘর বাড়ী নির্মান করিতেছে। তাই আমি আপনার নিকট সুবিচার চাই। বাকি কথা মুখ জবানিতে প্রকাশ করিব।

             

     অতএব, বিনীত নিবেদন এই যে,  উপরোক্ত বিষয়টি সুষ্ঠভাবে তদন্ত করে এর  সুষ্ঠ সমাধান দিতে জনাবের আজ্ঞা হয়।

 

 

 নিবেদক

 

 

 
 

জমির বিবরন

দাগনং ২৫৭৬-৩০শতক

দাগনং ২৫৭৪-২৯ শতক

 

 

 

 

  মো:নুরল হক

 পিতা:মৃত-রজব আলী

গ্রাম: হরিনারায়নপুর ওয়ার্ড-০৫

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

                               মোবা: ০১৭৪৪৪৩০৫৯৯

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর,                                           তাং:২৬/০২/১৮                                                                                              

চেয়ারম্যান                                 

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

বিষয়:  জমি নিয়ে বিরোধের সুষ্ঠ সমাধানের আবেদন প্রসঙ্গে ।

 

 

       
 

বাদী

০১।মো:বজির উদ্দিন

পিতা:মৃত খাজিম উদ্দিন

গ্রাম: গিলাবাড়ী  ওয়ার্ড-০৭

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

     মোবা:

 

   

বিবাদী

১।মো: আবুল হোসেন ০২।মো: তোফায়েল হোসেন উভয়ের পিতা: মৃত জফির উদ্দিন

গ্রাম: গিলাবাড়ী ওয়ার্ড:০৭

ডাকঘর:হরিনারায়নপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

জনাব,

 

সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ১১ নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ০৭ নং ওয়ার্ডের গিলাবাড়ী গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা।আমার পিতা তাহার জীবদ্দশায় আমাদের তিন ভ্রাতা যথা:০১।মো:আ:গফুর ০২।মো:জফির উদ্দিন ০৩।মো:বজির উদ্দিন গণের নামে ১৯৪৮ সালে ১২.১২ শতক সম্পত্তি ক্রয় করেন।তৎকাল হইতে আমরা তিন ভ্রাতা সমান অংশে মৌখিক ভাগ বন্টনে ভোগ দখল করিতেছিলাম। ২৯১৬ দাগের মোট জমি ৬০ শতক যাহা আমার দখলে হইতেছে। উক্ত দাগে ওয়ারিশ সুত্রে বিবাদীগণ ২০ শতক জমির দাবিদার বটে।কিন্তু ১৬৩২ দাগে ২২ শতক দখল ভোগ করিতেছিলেন এবং জফির উদ্দিনের জীবদ্দশায় ১৪৬৯ নং দলিল মুলে  অন্যের কাছে ইতিপুর্বে হস্তান্তর করিয়াছেন।সেই মতাবেক ২৯১৬ দাগে বিবাদী আমার কাছে বাটোয়ারা মোতাবেক কোন জমি পায়তেছে না।বর্তমানে তারা উক্ত জমির উপর মালিকানা দাবী করতেছেন।উক্ত বিষয়টি সুচারুভাবে তদন্ত পুর্বক কোন সুত্রে বিবাদীগন আমার জমির মালিকানার দাবিদার সেই  বিষয়টি সুষ্ঠুভাবে সমাধান করার জন্য অনুরোধ করিতেছি। বাকি কথা মুখ জবানিতে প্রকাশ করিব।

             

     অতএব, বিনীত নিবেদন এই যে,  উপরোক্ত বিষয়টি সুষ্ঠভাবে  সুষ্ঠ সমাধান দিতে জনাবের আজ্ঞা হয়।

 

 

 নিবেদক

 

 

 
 

জমির বিবরন

দাগনং ২৯১৬-৬০শতক

দাগনং ১৬৩২-২২ শতক

 

 

 

  মো:বজির উদ্দিন

পিতা:মৃত খাজিম উদ্দিন

গ্রাম: গিলাবাড়ী  ওয়ার্ড-০৭

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

     মোবা:

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর                                      তাং: ১২/০২/২০১৮

চেয়রম্যান                                           

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

 

বিষয় : গাছ কাটার অনুমতি প্রদান  প্রসঙ্গে

                        

 

 

জনাব,

     সবিনয় নিবেদন এই যে, আমরা নিম্বস্বাক্ষরকারী আপনার ইউনিয়নের 0৩.নং ওয়ার্ডের কাকডোব গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা।  আমরা গত ০৫/০৭/২০০৬ই তারিখে একটি চুক্তি করে ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিযনের আরাজী পস্তমপুর বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বাম রাস্তায় দক্ষিন দিক দিয়ে পাকা রাস্তা পর্যন্ত (সিএনজি রাস্তা) গাছ লাগাই। বর্তমানে চুক্তির মেয়াদ পুর্ন হওয়া এবং গাছপুলো পরিপক্ক হওয়ায় উক্ত গাছগুলো কাটার অনুমতি প্রদানের জন্য আপনার নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি।

 

বিধায় উক্ত বিষয়টি বিবেচনা করে উক্ত গাছগুলো আমাদেরকে কাটার অনুমতি প্রদান করিতে জনাবের মর্জি হয়

 

 

 

 

নিবেদক

 

ক্রমিন নং

নাম

পিতা

স্বাক্ষর

০১

নাম: মো: আব্দুল জলিল

পিতা: মো: আব্দুর রহিম

 

০২

মো: সামসুজ্জোহা

মো: আসরাফ আলী

 

০৩

মো: বদরুদ্দোজা

মো:আসরাফা আলী

 

০৪

মো:নজরুল ইসলাম (বাবু)

মো: মোজাম্মেল হক

 

         সকলের ঠিকানা

                                       গ্রাম: কাকডোব,ওয়ার্ড:০৩

১১নং মোহাম্মদপুর ইউ.পি.

উপজেলা ও জেলা : ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর,                                            তাং:০৫/০২/১৮                                                                                                  

চেয়ারম্যান                                 

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

বিষয়:  জমির দখল না ছাড়ার জন্য  বিচারের আবেদন প্রসঙ্গে ।

 

 

       
 

বাদী

০১।মো:হাফিজুল পিতা:মজির উদ্দিন০২।মো:হাবিব পিতা:আমিরুল

গ্রাম: পশ্চিম গিলাবাড়ী ওয়ার্ড-০৭

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

মোবা:০

   

বিবাদী

১।মো:আনোয়ার পিতা: নেন মোহাম্মদ০২।মো:সাহাজান পিতা:শইফতদ্দিন০৩।মো:লাবু পিতা:আনোয়ার

গ্রাম: গিলাবাড়ী ওয়ার্ড:০৭

ডাকঘর:হরিনারায়নপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

জনাব,

সবিনয় নিবেদন এই যে, আমরা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ১১ নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ০৭ নং ওয়ার্ডের গিলাবাড়ী গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। উপরোক্ত বিবাদীগন একদল ধুরন্দর দল বটে।তারা যখন তখন মানুষের সাথে ঝগরা লেগেই থাকে।আমরা ১২/০৯/২০১৭ ইং সালে ব্যাটেন চৌধুরীর কাছ থেকে আমরা জমিটি ক্রয় করি। আমরা জমিটি রেজিস্ট্রি করার পরও বিবাদীগন আমাদের জমি দখল ছাড়তেছে না।উপরন্তু বিবাদীগন আমাদেরকে মারার নানা রকম হুমকি দিচ্ছে।রাস্তঘাটে আমাদের ধরতে পারলে বিবাদীগন আমাদের মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিচ্ছে।আমাদের নাকি পুর্ব গিলাবাড়ীতে যেতে দেখলে তারা হামলা করবে।এই ধরনের নানা কথাবার্তা বিবাদীগন আমাদের সম্পর্কে গ্রামের মানুষেরদে বলতেছে।আমরা আমাদের অধিকারে জমিটিতে কিছু গাছ লাগিয়েছিলাম কিন্তু বিবাদীগন সবগাছ উপরে ফেলে দেয।আমরা আমাদের জমির দলিল দাখিল করতে চাই কিন্তু বিবাদীগন কোনমতে আমাদর পস্তাব মেনে ও সুরাহা করতেছে না। তাই আমি আপনার নিকট সুবিচার চাই। বাকি কথা মুখ জবানিতে প্রকাশ করিব।

             

     অতএব, বিনীত নিবেদন এই যে,  উপরোক্ত বিষয়টি সুষ্ঠভাবে তদন্ত করে এর  সুষ্ঠ সমাধান দিতে জনাবের আজ্ঞা হয়।

 

জমির দাগ না:১০৮২ পরিমাণ:৪৪ শতক

খতিযান:৩৮৯ মৌজা:গিলাবাড়ী জেলনং:১৭৮

দাগ নং:১০৯৩ পরিমান:০৮ শতক

নিবেদক

 

 

 

০১।মো:হাফিজুল পিতা:মজির উদ্দিন০২।মো:হাবিব পিতা:আমিরুল

গ্রাম: পশ্চিম গিলাবাড়ী ওয়ার্ড-০৭

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

বরাবর,                                            তারিখ: ২৬-০২-২০১৮

     চেয়ারম্যান

     ১০ নং জামালপুর  ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

মাধ্যম: চেয়রম্যান

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

বিষয় : স্ত্রী   উদ্ধারের  জন্য  আবেদন  পসঙ্গে।

 

 
 

বিবাদী

১। ১।মো: আব্বাস আলী

পিতা: মৃত আজির ০২।আফতার স্বামী:আব্বাস ০৩।লাবনী আক্তার

গ্রাম: মহেশপুর ওয়ার্ড:০

ইউনিয়ন:১০ নং জামালপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

জনাব,

     সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা ১১নং মোহাম্মদপুর  ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের ০৯ নং ওয়ার্ডে একজন স্থায়ী বাসিন্দা। উপরোক্ত বিবাদীগন একদল ষড়যন্ত্রকারী,হিংসুটে এবং খারাপ স্বভাবের ।তাহার যখন তখন মানুষের সাথে লেগেই থাকে।প্রকাশ থাকে যে, ১ও ২ নং বিবাদী আমার শ্বশুর ও শাশুরি হয় ও ০৩ নং বিবাদী আমার স্ত্রী হয় ।তারা সকলে আমার সাথে অমানবিক কার্যকলাপ করিতে দিধা করে না।আমি প্রায়  ১ বছর ছয মাস পুর্বে ০৩ নং বিবাদীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই।এর পর ১ বছর ঘর সংসার হয়।এমতাবস্থায় আমার স্ত্রী লাবনী আক্তার তাহার বাবার বাড়ীতে মেহমান খেতে যায়।পরবর্তীতে ১ও ২ নং বিবাদী আমার স্ত্রীকে স্বজনপ্রীতি কুপরামর্শ দিয়া ঢাকায় পাঠিয়ে দেন।এবং আমার সংসার ভেঙ্গে তছনচ করতে চান।আমি স্ত্রীকে আনতে গেলে আমাকে বিভিন্ন ভাষায় আচরন করে  ও ১/২ নং বিবাদী আমাকে বিভিন্ন ভাবে কথা বলে আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়াবে,।এহেন অবস্থায় অভিযোগ খানি আপনার বরাবরে আনয়ন করিলাম।  তাই আপনি বিষয়টি সুচারুভাবে তদন্ত করবেন ।বাকী কথা মুখে প্রকাশ করিব।

 

বিধায় প্রার্থনা দয়া করে আমার উপরিউক্ত বিষয় সুবিবেচনা আমার স্ত্রীকে উদ্ধারের ব্যবস্থা দানে এবং স্বাভাবিকভাবে জীবন অতিবাহিত করার সুযোগ করে দিতে  জনাবের  মর্জি হয়।

 

নিবেদক

 

 

মো:রানা

 পিতা:মো:আইনুল হক

গ্রাম: মোহাম্মদপুর ওয়ার্ড-০৯

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর,                                            তারিখ: ২১-০১-২০১৮

     চেয়ারম্যান

     ১০ নং জামালপুর  ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

মাধ্যম: চেয়রম্যান

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

বিষয় :  আমার মেয়ের উপর নির্যতনের   সুবিচারের আবেদন  পসঙ্গে।

 

 

বিবাদী

১। ১।মো:রসিদুল ইসলাম

পিতা: মো;কালু,

গ্রাম: ফকদনপুর ওয়ার্ড:০

ইউনিয়ন:০৮ নং রহিমানপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

জনাব,

     সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা ১১নং মোহাম্মদপুর  ইউনিয়নের কাকডোব গ্রামের ০৩ নং ওয়ার্ডে একজন স্থায়ী বাসিন্দা। আমি প্রায় ০৫ বছর  আগে আপনার ইউনিয়নের  উক্ত বিবাদীর সহিত আমার মেয়ের  বিবাহ হয়েছে।  সংসার চলাকালীন  তারা ০১ ছেলে সন্তানের জন্ম দান করে। উপরোক্ত বিবাদী সব সময় আমার মেয়ের সাথে নানারকম শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায়। আমার মেয়েকে নানারকম অত্যাচার সহ্য করতে হয় এবং আগে অনেকবার বিচার হয়।অবশেষে আমার মেয়ে তাহার  স্বামীকে তালাক প্রদান করে ঢাকায় যায় পোশাক শিল্পে জীবিকা নির্বাহ করতে ।কিন্তু আমার জামাই সেখানে গিয়ে আমার মেযেকে অত্যাচার করে।বিবাদী কোনমতে আমার মেয়ের পিছু ছাড়ে না।ঢাকায় গিয়ে আমার মেয়েকে দারুনভাবে হুমকি প্রদান করে এবং অবশেষে আমার মেযের সাথে সংসার শুরু করতে চেষ্টা করে।কিন্তু সংসার শুরু করার কিছু দিনের মধ্যে আবার মারদাঙ্গা শুরু করে।এবং আমার মেযেকে মাথায় আঘাত করে, আমার মেযেকে চরমভাবে অসুস্থ করে তোলে। তাই আপনি বিষয়টি সুচারুভাবে তদন্ত করবেন এবং  কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করবেন যাতে আমার মেয়েকে উক্ত বিবাদী কোন মতে আমার মেয়ের কাজের ব্যাঘাত ঘটাতে না পারে।

         

বিধায় প্রার্থনা দয়া করে আমার উপরিউক্ত বিষয় সুবিবেচনা আমার মেয়ের স্বাভাবিকভাবে জীবন অতিবাহিত করার সুযোগ করে দিতে  জনাবের  মর্জি হয়।

 

নিবেদক

 

 

মো:ফরিদা বেগম

 স্বামী:মো:নহিরুল ইসলাম

গ্রাম: কাকডোব ওয়ার্ড-০৩

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

মোবা:

 

বরাবর                                     তাং:…../০…/২০১৮

চেয়রম্যান                                           

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

 

বিষয় : মাদার ডাঙ্গী গোরস্থানের গাছ কর্তন করে এলাকার উন্নয়নের অনুমতি প্রদান প্রসঙ্গে

 

 

 

জনাব,

     সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি মো:সাহাদত আলী আপনার ইউনিয়নের ০২ নং ওয়ার্ডের সরকার পাড়া জামে মসজিদের সভাপতি ।আশেপাশের ১০ টি মসজিদের মুসল্লতিদের মাদার ডাঙ্গী গোরস্থানে দাফন করা হয়।উক্ত গোরস্থানে অনেক জঙ্গলী গাছ থাকার কারনে রাত্রে অনেক অসামাজিক আইন বিরোধী কার্যক্রম চলতেছে।তাই আমিসহ উক্ত ১০ টি মসজিদের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকগণ মিলে গোরস্থানের জঙ্গলী গাছ গুলো কেটে ফেলে এলাকার উন্নয়নমুলক কাছ করার অনুমতি আবেদন জানাচ্ছি।

 

বিধায় উক্ত বিষয়টি বিবেচনা করে মাদার ডাঙ্গী গোরস্থানের গাছ কর্তন করে এলাকার উন্নয়নের অনুমতি প্রদান জনাবের মর্জি হয়

 

 

১০ টি মসজিদ

১। সরকার পাড়া জামে মসজিদ

০২।পুর্ব ফকদনপুর জামে মসজিদ

০৩।আ:পস্তমপুর ডবর ধনি জামে মসজিদ

০৪।আ:পস্তমপুর আ:করিম জামে মসজিদ

০৫।আ:পস্তমপুর কাপুরি জামে মসজিদ

০৬।উত্তর কাকডোব জামে মসজিদ

০৭।গোয়াপাড়া জামে মসজিদ

০৮।নুরে মেরাজ জামে মসজিদ

০৯।মাস্টার পাড়া আসির আমীন জামে মসজিদ

১০।আর্দশপাড়া জামে মসজিদ

 

 

 

 

 

         নিবেদক

                                    ১০টি মসজিদের সভাপতি ও সা:সম্পাদকের পক্ষে

 

     মো:শাহাদত আলী

সভাপতি সরকার পাড়া জামে মসজিদ

১১নং মোহাম্মদপুর ইউ.পি.

উপজেলা ও জেলা : ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর                                     তাং:…২২../০২…/২০১৮

চেয়রম্যান                                           

     ১১নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ

     ঠাকুরগাঁও সদর, ঠাকুরগাঁও।

 

 

বিষয় :দখল  না ছাড়ার জন্য সুষ্ঠু বিচারের আবেদন।

 

 

বিবাদী

১। রবি দত্ত

পিতা: মৃত নগেন দত্ত,

গ্রাম: হরিনারায়নপুর ওয়ার্ড:০৪

ডাকঘর:হরিনারায়নপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

জনাব,

   সবিনয় নিবেদন এই যে, আমরা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ১১ নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ০৪ নং ওয়ার্ডের হরিনারায়নপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। আমার পৈতৃক সম্পত্তি আমার বাবা উপরোক্ত বিবাদীর কাছে আনুমানিক ১৯৭৫ ইং সালে বিক্রয় করি।আমার বিক্রিত সম্পত্তির পরিমাণ থেকে উক্ত বিবাদী বেশি পরিমানে দখল করে আছে।আমি উক্ত বিষয়টিতে  বিবাদীর কাছে সমাধান করতে চাইলে বিবাদী কোন কথার কর্নপাত করেন না।বরং আমাকে উল্টো হুমকি দেখাচ্ছে।তাই আপনি বিষয়টি সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে সমাধান দিতে জনাবের মর্জি হয়।

 

অতএব, বিনীত নিবেদন এই যে,  উপরোক্ত বিষয়টি সুষ্ঠভাবে তদন্ত করে এর  সুষ্ঠ সমাধান দিতে জনাবের আজ্ঞা হয়।

 

 

 

দাগ নং:

০১।১৪০১

০২।১৩৬৬

০৩।১৪০৮

০৪।১৪০৯

০৫।১৪০৪

০৬।১৪১১

০৭।১৪১৩

০৮।১৪০৩

 

 

 

 

 

         নিবেদক

    

 

কিরন

 পিতা:অনিল দত্ত

গ্রাম: হরিনারায়নপুর ওয়ার্ড-০৪

ইউপি:১১নং মোহাম্মদপুর

জেলা-উপজেলা: ঠাকুরগাঁও।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বরাবর                                     তাং:…../০…/২০১৮

অফিসার ইনচার্জ                                         

    ঠাকুরগাঁও থানা

    ঠাকুরগাঁও।

 

 

বিষয় : অবহহিতকরণ  প্রসঙ্গে

 

 

 

জনাব,

    সবিনয় নিবেদন এই যে, আমরা ০১। জসিম উদ্দিন অরফে জসির অরফে আন্ধারু পিতা:মৃত নিজাম উদ্দিন সাং:কাকডোব থানাওজেলা:ঠাকুরগাঁও।০২।মো:সুলতান পিতা:মাইনদ্দিন (ভুজারি)০৩।মোছা:ফজিলা স্বামী:মো:সুলতান আলী ০৪।মো:সোহেল রানা পিতা:মো:সুলতান সর্ব সাং:ভাগুরা থানা:পীরগজ্ঞ জেলা:ঠাকুগাঁও এই মর্মে আপনাকে অবহিত করছি যে দলিল নং:৫১৯ তাং ২৮/১২/২০১৭ মূলে  গ্রহিতা মো:মনতাজ আলী পিতা:মৃত মজির উদ্দিন নিকট বিক্রয় সূত্রে নিম্ন তফসিল বর্ণিত জমি হস্তান্তর করি ।

 

অতএব, অত্র অবহিতকরণ পত্রটি আপনার বরাবর দাখিল করিলাম।

 

তফসিল

থানা ও জেলা:ঠাকুরগাঁও,মৌজা:গিলাবাড়ী

খতিয়ান নংসি এস -২০০

এস, এ ২১৭

দাগনং:২০

পরিমান:৫৩ শতক

দাখিলকারী

পক্ষে

 

মো:সুলতান

পিতা:মাইনুদ্দিন(ভুজারি)

সাং:ভাগুরা

থানা:পীরগজ্ঞ

জেলা:ঠাকুরগাঁও।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter